হ্যালো ! Mojar School :: মজার ইশকুল স্বেচ্ছাসেবী বন্ধুরা

হ্যালো ! Mojar School :: মজার ইশকুল স্বেচ্ছাসেবী বন্ধুরা

স্বাগতম মজার ইশকুলের নিয়মিত আয়োজন, মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন ৮ ।
  • অনলাইন স্বেচ্ছাসেবী রেজিস্ট্রেশন
  • ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম
  • ঈদ উৎসব প্রোগ্রাম শিডিউল
  • উৎসব রিভিউ প্রোগ্রাম
  • ডোনেট ( Donation ) করতে চাই
  • প্রশ্ন ও উত্তর ( FAQ's)

আসছে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন- ০৮। গত বছরের তুলনায় এইবার অধীক সংখ্যক শিশুর কাছে ঈদের আনন্দ নিয়ে পৌছানোর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে মজার ইশকুল টিম। আপনি চাইলে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যুক্ত হতে পারেন মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন- ০৮ এ এবং ২০০০ জন শিশুর মুখের হাসি ফোটাটে নিশ্চিত করতে পারেন আপনার অংশগ্রহণ।

মজার ইশকুল এর প্রতিটি উৎসবে নিয়মিত স্বেচ্ছাসেবীর পাশাপাশি উৎসবে অংশগ্রহণের জন্য উৎসব স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যুক্ত হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

উৎসব স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়াঃ

১। অনলাইনে স্বেচ্ছাসেবী নিবন্ধন ফর্ম পূরণ করা।

২। অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন- এর প্রধান কার্যালয়ে এসে স্বেচ্ছাসেবী নিবন্ধন ফর্ম পূরণ করা।

৩। স্বেচ্ছাসেবী রেজিস্ট্রেশন ফি ২৫০ তাকা (ক্যাশ/বিকাশ) নিশ্চিত করা।

৪। উৎসব ওরিয়েন্টেশনে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অংশগ্রহণ করা।

এখানে উল্লেখ্য যে একজন স্বেচ্ছাসেবীকে উৎসবে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে নিবন্ধনের পর ৩ টি বিষয় অবশ্যই নিশ্চিত করতে হয়।

১। উৎসবের ওরিয়েন্টেশনে সময়ের মধ্যে উপস্থিতি নিশ্চিত করা।

২। উৎসবে নির্ধারিত টিশার্ট পরে সময়ের মধ্যে উপস্থিত হওয়া।

৩। উৎসব রিভিউ প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করা।

স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে আপনার অংশগ্রহণ মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন- ০৮- এ ২০০০ জন শিশুর মুখে হাসি নিশ্চিত করে সফলভাবে সম্পন্ন করতে সহায়তা করবে।

নোটঃ

১। অনলাইনে ফর্ম পূরন না করে, সরাসরি অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন- এর প্রধান কার্যালতে এসে ফর্ম পূরণ করতে পারেন।

২। স্বেচ্ছাসেবীদের জন্য উৎসব আয়োজিত ওরিয়েন্টেশনে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উপস্থিতি নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হলে, তাকে উক্ত উৎসবে অফ রাখা হয় এবং পরবর্তি উৎসবে সময়ের মধ্যে আসার বিষয়ে উৎসাহ প্রদান করা হয়।

৩। স্বেচ্ছাসেবী প্রদত্ত ২৫০ টাকার বিপরীতে অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রদত্ত মানিরিসিপ্ট সংগ্রহ করা।

৪। উৎসব রিভিউ প্রোগ্রামে সময়ের মধ্যে অংশগ্রহণ আবশ্যক। কোন স্বেচ্ছাসেবী উৎসব রিভিউ প্রোগ্রামে উপস্থিতি নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হলে, তাকে মজার ইশকুলঃ ফল উৎসব ২০২০, সিজন- ০৮ অফ রাখা হবে। মজার ইশকুলঃ ফল উৎসব ২০২০, সিজন- ০৮ পরবর্তী যেকোন উৎসবে পুনরায় সরাসরি যুক্ত থাকার উৎসাহ প্রদান করা হবে।

স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যুক্ত হওয়ার শেষ তারিখ ০৬ মে, ২০২০। দেরি না করে আজই রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে।

কোন আয়োজনের সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রস্তুতির বিকল্প নেই। মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর এবারের আয়োজনে রাজধানী ঢাকা সহ ৮টি বিভাগীয় শহরে (ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর) ৫০০ জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করবে ২০০০ জন সুবিধাবঞ্ছিত শিশুর মুখে হাসি ফোটানোর লক্ষ্যে।

রাজধানী ঢাকার ৩০০ স্বেচ্ছাসেবীকে  মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর কার্যক্রম ও প্রস্তুতি সম্পর্কে জানানো ও আলোচনার জন্য উৎসব এর ০৭ দিন পূর্বে আয়োজিত হবে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর স্বেচ্ছাসেবীদের ওরিয়েন্টেশন।

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর উৎসব ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ০৮ মে ২০২০, রোজ শুক্রবারে ঢাকা বিশ্ববিধ্যালয় এর সেন্টার অব অ্যাডভান্সড রিসার্চ ইন আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস(CARASS) এর অডিটোরিয়াম-এ।

সকাল ১০ টায় স্বেচ্ছাসেবী রিপোর্টিং এর মধ্য দিয়ে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর স্বেচ্ছাসেবীদের ওরিয়েন্টেশন এর সূচনা হবে। শুরুতেই সকল স্বেচ্ছাসেবী তাদের রেজিস্ট্রেশন ফি এর মানিরিসিট সম্বলিত একটি টিম ফটো তোলা হবে। অতঃপর সকল স্বেচ্ছাসেবীদের সাথে পরিচয় পর্ব সম্পন্ন করা হবে।

 

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর স্বেচ্ছাসেবীদের ওরিয়েন্টেশন দুইটি সেশনে বিভক্ত করা হবে। সকাল ১০ টা হতে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত প্রথম সেশনে মজার ইশকুল পরিচিতি নিয়ে একটি উপস্থাপনা উপস্থাপন করা হবে। পাশাপাশি মজার ইশকুল এর নিয়মিত ক্লাস ও মজার ইশকুলঃ কমলাপুর হতে মজার ইশকুল মানিকনগর এর ট্রান্সফরমেশন এর ভিডিও প্রদর্শন করা হবে।

প্রথম সেশন শেষে দুপুর ১২ টা থেকে দুপুর ০২ টা পর্যন্ত থাকবে নামাজ এর বিরতি।

দ্বিতীয় সেশন অনুষ্ঠিত হবে দুপুর ০২ টা থেকে বিকাল ০৫ টা পর্যন্ত।এই সেশনের শুরুতেই পূর্বের বছরের মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসবসমূহের ভিডিও প্রদর্শন করা হবে। অতঃপর মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর পরিকল্পনা, স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে দায়িত্ব,করণীয় ও বর্জনীয় বিষয়সমূহ এবং সেরা নির্বাচনী মানদন্ড নিয়ে একটি উপস্থাপনা উপস্থাপন করা হবে।

উপস্থাপনা শেষে স্বেচ্ছাসেবীদের উৎসব পয়েন্ট অনুসারে একাধিক টিমে বিভক্ত করে দেওয়া হবে। এরপর টিমের ক্যাপ্টেন অফ দ্যা শিপ তার টিম মেম্বারদের দায়িত্ব ভাগ করে দিবে এবং উৎসব কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা করা হবে। উক্ত আলোচনায় সকল টিম মেম্বারের পরামর্শ গ্রহণ করে উৎসবের চূড়ান্ত পরিকল্পনা তৈরি করা হবে এবং উক্ত পরিকল্পনা অনুসারে উৎসব এর কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

বিকাল ০৫:০০ টায় দ্বিতীয় সেশন এর টিমভিত্তিক আলোচনা শেষে সকল স্বেচ্ছাসেবী মিলে একটি টিম ফটোগ্রাফে অংশ নিবেন।

বিকাল ০৫:৩০ নাগাদ মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর স্বেচ্ছাসেবীদের ওরিয়েন্টেশন এর সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষ হবে।

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর স্বেচ্ছাসেবীদের ওরিয়েন্টেশন এর শেষ পর্বে সকল স্বেচ্ছাসেবী মিলে একসাথে ইফতারি অংশগ্রহণ করবেন।

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০।সিজন-০৮ এর পরিকল্পনা:

আগামী ১৬ মে, ২০২০ রোজ- শনিবার মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন-০৮ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।এবারের আয়োজন হতে যাচ্ছে মজার ইশকুল ঈদ উৎসব সমূহের মধ্য অন্যতম বৃহদাকার আয়োজন। যেখানে তিনদিন ব্যাপী রাজধানী ঢাকা সহ ৮টি বিভাগে (ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর) ২০০০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর কাছে ঈদের পোশাক দেয়ার পরিকল্পনা করেছে মজার ইশকুল। ঢাকা বিভাগের ০৭ টি পয়েন্ট শাহবাগ, কমলাপুর, সদরঘাট, ধানমন্ডি, এয়ারপোর্ট, উত্তরা এবং খিলগাঁও পয়েন্টের শিশুরা রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে ষ্টেশনে এক্ত্রিত হয়ে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব, ২০২০ সিজন-০৮ এ অংশগ্রহণ করবে।

দিনটি শুরু হবে ভোর ৬ টায় ঢাকার ৬টি পয়েন্টে , শাহবাগ, সদরঘাট, ধানমন্ডি, এয়ারপোর্ট, উত্তরা এবং খিলগাঁও পয়েন্টে দ্বিতল বিআরটিসি বাস পৌছানোর মাধ্যমে (কমলাপুর উৎসব স্থান হওয়ার কারনে কমলাপুর পয়েন্টের শিশুরা তাদের নিজ পয়েন্টেই অবস্থান করবে)। বাসের সাথে ১ জন স্বেচ্ছাসেবীর ও উৎসব শুরু হবে ভোর ৬টা ।স্বেচ্ছাসেবীরা তাদের নিজ নিজ পয়েন্টে রিপোর্টিং করবেন সকাল ১০টায়। পয়েন্টে শিশুদের রিপোর্টিং সময় হচ্ছে সকাল ১১টা।

যে সকল পয়েন্ট থেকে শিশুরা বাসে আসবে তাদের শুরু হবে বাসে উঠার প্রস্তুতি এবং কমলাপুর পয়েন্টে শুরু হবে উৎসব ডেকোরেশনের প্রস্তুতি।

দুপুর ১২.০০ টার মধ্য সকল পয়েন্টের বাসগুলো শিশুদের নিয়ে নিজ নিজ পয়েন্ট থেকে কমলাপুরের উদ্দেশ্য যাত্রা শুরু করবে এবং দুপুর ২টার মধ্য পয়েন্টের বাসগুলো কমলাপুর ষ্টেশনে এসে পৌঁছাবে।

দুপুর ২.৩০ এর মধ্য আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হবে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন-০৮ এর পরিবেশনার কার্যক্রম।শুরুতে বিভিন্ন পয়েন্টের শিশুদের নাচ, গান পরিবেশনার মাধ্যমে উৎসব এর মূল অনুষ্ঠানের সূচনা ঘটে।এরপর উৎসবে আগত অতিথিবৃন্দ শিশুদের উদ্দেশ্য সংক্ষিপ্ত বক্তব্য উপস্থাপন করবেন।

ঠিক বিকাল ০৩:০০ টায় উৎসবে আগত শিশুর হাতে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ ঈদের পোশাক তুলে দেওয়ার মাধ্যমে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর ঈদের নতুন পোশাক বিতরণী কার্যক্রম শুরু হবে।

সকল   শিশুর সাথে পোশাক পৌঁছে যাওয়ার পর বিকেল ৩.৩০ টা সকল শিশু তাদের ঈদের নতুন পোশাক, রঙ্গিন চশমা, ঘড়ি পড়ে দেখা শেষে বিকেল ৪ টায় কমলাপুরের প্রোগ্রামের সমাপ্তি ঘটবে।

এবারে ফেরার পালা ।হাতে ঈদের নতুন পোশাক, রঙ্গিন চশমা, ঘড়ি, বেল্ট (ছেলেদের), মেকাপ বক্স( মেয়েদের) নিয়ে নিজ নিজ পয়েন্টে।সকালের মতোই আবার বাসে করে শিশুদের নিজ নিজ পয়েন্টে পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে সমাপ্তি ঘটবে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব- ২০২০, সিজন-০৮ এর ঢাকা পর্বের।

 

প্রতিটি উৎসব শেষে মজার ইশকুল এর সকল স্বেচ্ছাসেবী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা উৎসব এর সুন্দর মুহূর্তসমূহ একসাথে উপভোগ করে এবং উৎসবের ভালো দিক ও নিজেদের সংশোধনী দিকসমূহ পর্যালোচলা করার উদ্দেশ্যে উৎসব রিভিউ আয়োজিত হয়। মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব এর রিভিউ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয় ঈদ পরবর্তী সময়ে।

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর রিভিউ প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ জুন ২০২০, রোজ শুক্রবারে ঢাকা বিশ্ববিধ্যালয় এর সেন্টার অব অ্যাডভান্সড রিসার্চ ইন আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সেস(CARASS) এর অডিটোরিয়াম-এ।

রাজধানী ঢাকা সহ ৮টি বিভাগীয় শহরে (ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর) এ মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এ অংশগ্রহণ করা ৫০০ জন স্বেচ্ছাসেবীর মিলনমেলায় পরিণত হবে ঈদ উৎসব এর রিভিউ প্রোগ্রাম।

ঠিক বিকেল ০৩:০০ টায় একজন স্বেচ্ছাসেবীর গানের মধ্য দিয়ে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর রিভিউ প্রোগ্রাম শুরু হবে। স্বেচ্ছাসেবীর গান উপভোগ শেষে উৎসব এর ভালো ও সংশোধনী দিক নিয়ে স্বেচ্ছাসেবী ফিডব্যাকসমুহ সকলে মিলে আলোচনা করা হবে।

অতঃপর মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর সার্বিক কার্যক্রম উল্লেখপূর্বক একটি উপস্থাপনা সকল স্বেচ্ছাসেবীর সামনে উপস্থাপন করা হবে। উপস্থাপনা শেষে মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর ভিডিও সকলে মিলে উপভোগ করা হবে।

এরপরই থাকবে উৎসবে অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবীদের অভিজ্ঞতা শোনার পর্ব। মজার ইশকুল বিভাগীয় টিমসমূহের অভিজ্ঞতা শোনা হবে রিভিউ প্রোগ্রামের অন্যতম আকর্ষণীয় পর্ব।

সবশেষে থাকবে উৎসবে সেরাদের নাম ঘোষণা ও পুরস্কার বিতরণী পর্ব।

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব-২০২০, সিজন-০৮ এর স্বেচ্ছাসেবীদের টিম ফটো তোলার মধ্য দিয়ে রিভিউ প্রোগ্রাম এর পরিসমাপ্তি ঘটবে।

মজার ইশকুল ( an Odommo Bangladesh Foundation initiative ll We are government registered organization )

Odommo Bangladesh Foundation Official #Bank Accounts

Southeast Bank Ltd

Accounts Number: 004511100000594
Accounts Name: Odommo Bangladesh Foundation
Accounts Type : Saving
Bank Name: Southeast Bank Ltd
Branch : Mouchak Branch
Location: Dhaka
Routing Number :: 205274365
....

City Bank Ltd.

Accounts Number: 1401813610001
Accounts Name: Odommo Bangladesh Foundation
Bank Name: City Bank Ltd.
Branch : Mongbazar Branch
Location: Dhaka

or

Odommo Bangladesh Foundation Official #bKash
01751553361 ( Type: Merchant Accounts )
01788886904 ( Type: Personal Accounts )
01788886903 ( Type: Personal Accounts )
01511886904 ( Type: Personal Accounts )

Odommo Bangladesh Foundation Official #Rocket

017888869042
017888869031

Odommo Bangladesh Foundation Official #Paypal

mspaypal2019@gmail.com

#Emergency Contact +88017 8888 6904 ( office)

Western Union, MoneyGram, Ria and others

আমি কিভাবে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যুক্ত হতে পারি?

- ইভেন্টে উল্লেখিত লিংকের (লিংক) অনলাইন ফর্ম পূরণ করে জমা দিতে হবে এবং অতঃপর অফিসে এসে চূড়ান্ত রেজিস্ট্রেশন ফর্ম পূরণের মাধ্যমে আপনি স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে যুক্ত হতে পারেন।অনলাইনে ফর্ম পূরণ করার পর অফিস থেকে আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে।তবে আপনি চাইলে সরাসরি অফিসেও চলে আসতে পারেন।সেক্ষেত্রে অনলাইনে ফর্ম না হলেও চলবে।

 

২. কোথায় কোথায় উৎসব হবে?

- রাজধানী ঢাকা সহ দেশের মোট ০৫ টি বিভাগের ১৪ টা পয়েন্টে  মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব- ২০২০, সিজন-০৮ উদযাপন করার লক্ষ্য কাজ করছে মজার ইশকুল টিম।

 

১. ঢাকা বিভাগ। ( মজার ইশকুলঃ আগারগাও, মজার ইশকুলঃ মানিকনগর, মজার ইশকুলঃ শাহবাগ, মজার ইশকুলঃ কমলাপুর,, মজার ইশকুলঃ সদরঘাট, মজার ইশকুলঃ ধানমন্ডি, এয়ারপোর্ট পয়েন্ট, উত্তরা পয়েন্ট এবং খিলগাঁও পয়েন্ট।

২. বরিশাল বিভাগ। (মজার ইশকুলঃ মনপুরা- ০১, মজার ইশকুলঃ মনপুরা- ০২)

৩. খুলনা বিভাগ।

৪. চট্টগ্রাম বিভাগ।

৫. ময়মনসিংহ বিভাগ।

 

৩. ঢাকার বাইরে কি উৎসব হবে?

- জ্বি হবে।রাজধানী ঢাকা ছাড়াও দেশের ৪ টি বিভাগীয় শহর অনুষ্ঠিত হবে

৪. উৎসবে আমার কাজ কি হবে?

- উৎসবে আপনার কাজ হবে শিশুদের বন্ধু হওয়া এবং আপনার টিম লিডার প্রদত্ত সকল কাজ যথাযথ দায়িত্ব নিয়ে সম্পন্ন করা।

 

৫. উৎসবে যুক্ত হওয়ার জন্য কি কোনো রেজিস্ট্রেশন ফি আছে?

- জ্বি আছে।মজার ইশকুলের সাথে প্রথমবারের মতো কাজ করতে আসা স্বেচ্ছাসেবীদের জন্য ২৫০ টাকা এবং মজার ইশকুলের সাথে এর পূর্বেও স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করেছে এমন ব্যক্তিদের রেজিস্ট্রেশন ফি হচ্ছে ১০০ টাকা।

 

৬. রেজিস্ট্রেশন ফি কেনো নেয়া হয়?

- শুধুই আপনার কনফার্মেশন এর জন্য।এছাড়াও রেজিস্ট্রেশন ফি এর টাকা থেকে আপনার জন্য মজার ইশকুল এর লোগো সংবলিত টি-শার্ট, ওরিয়েন্টেশন, উৎসব, এবং রিভিউ প্রোগ্রামের খাবার খরচ বাবদ ব্যয় করা হয়।

 

৭. এই উৎসব গুলো কেন করা হয়?

- শিশুদের মাদক, চুরি, ছিনতাইয়ের মতো অপরাধমূলক কর্মকান্ড থেকে দূরে রাখার জন্য।শিশুদের এই মেসেজ দেয়া তোমরা পথে না থেকে যদি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার চেষ্টা করো তাহলে এরচেয়েও ভালো কিছু তোমার জন্য অপেক্ষা করছে।

 

৮. উৎসবের দিন সারাদিন থাকতে হবে কি?

- জ্বি।আমরা শিশুদের সাথে সুন্দরভাবে উৎসবটি উদযাপন করতে চাই।এবং তাই আপনার একটি দিন আমাদেরকে অনেক বেশি সহায়তা করবে।

 

৯. স্বেচ্ছাসেবী যুক্ত হিসেবে থাকার জন্য কোন বয়সসীমা আছে কি?

- নেই।

 

১০. ওরিয়েন্টেশনে থাকা কি বাধ্যতামূলক?

- জ্বি।ওরিয়েন্টেশন মূলত হচ্ছে আপনার দায়িত্ব বুঝে নেয়া, টিমের সাথে পরিচিত হয়ে নেয়া, কিভাবে কাজ করবেন, কেন করবেন, কাদের সাথে করবেন, কাদের জন্য করবেন, উৎসব স্থলে আপনার করনীয় কি এবং পরিত্যাজ্য কি সবকিছু মূলত ওরিয়েন্টেশনের মাধ্যমেই আপনাকে জানানো হবে।এখন বুঝতেই পারছেন কেন বাধ্যতামূলক!!

 

১১. ওরিয়েন্টেশন কবে?উৎসব কবে? রিভিউ কবে?

- ওরিয়েন্টেশনঃ ০৮ মে, ২০২০। রোজ- শুক্রবার।

- উৎসবঃ ১৬ মে, ২০২০। রোজ- শনিবার।

- রিভিউঃ ০৮ জুম।২০২০।রোজ- শুক্রবার।

 

১২. ওরিয়েন্টেশন, উৎসব এবং রিভিউতে কি রিপোর্টিং সময় মেনে উপস্থিত হতে হবে?

- জ্বি অবশ্যই।মজার ইশকুল সবসময় সময় মেনে কাজ করতে চায়।রিপোর্টিং সময়ের ০১ মিনিট দেরী করলেই গেট লক হয়ে যাবে।কাজেই রিপোর্টিং সময় মেনেই প্রোগ্রামে উপস্থিত থাকার প্রস্তুতি নিতে অনুরাধ করছি।

Image
Mojar School Eid Festival 2020, Season 8
Mojar School Eid Festival 2020, Season 8

Mojar School Eid Festival 2020, Season 8

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন-০৮
বছর ঘুরে আবার চলে এলো মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব। আগামী ১৬ মে, ২০২০ রোজ- শনিবার আয়োজিত হতে যাচ্ছে মজার ইশকুল এর অষ্টম ঈদ আয়োজন মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন-০৮।

এবারের আয়োজন হতে যাচ্ছে মজার ইশকুল ঈদ উৎসব সমূহের মধ্য অন্যতম বৃহদাকার আয়োজন। যেখানে তিনদিন ব্যাপী রাজধানী ঢাকা সহ ৮টি বিভাগের (ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর) ২০০০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর কাছে ঈদ আনন্দ পৌঁছে দিতে চায় মজার ইশকুল টিম যা গতবছরের দ্বিগুণ।

ঢাকা সহ ৮টি বিভাগে মোট ৫০০ জন স্বেচ্ছাসেবী্র মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব এর আয়োজনে শিশুদের পাশে থাকার সুযোগ থাকবে।

বিগত বছরের মত এ বছরের আয়োজনে ছেলে শিশুদের জন্য থাকবে শার্ট, প্যান্ট, বেল্ট, চশমা ও ঘড়ি এবং মেয়ে শিশুদের জন্য থাকবে জামা টাইলস, মেকআপ বক্স, চশমা ও ঘড়ি।

এই ঈদে আপনিও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পাশে থাকতে পারেন ডোনার কিংবা স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে।

০১ জন শিশুর জন্য= ১,০০০ টাকা
০৫ জন শিশুর জন্য= ৫,০০০ টাকা
১০ জন শিশুর জন্য= ১০,০০০ টাকা
২০ জন শিশুর জন্য= ২০,০০০ টাকা
৫০ জন শিশুর জন্য= ৫০,০০০ টাকা
Donate One Dress
Donation
5%
Mojar School Eid Festival 2020, Season 8
10%
Image
মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব এ আমরা যা করিঃ

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব এ আমরা যা করিঃ

মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব এ আমরা যা করিঃ শৈশবের ঈদ মানের আনন্দ, নতুন পোশাক কেনা ও তা সবার কাছে থেকে লুকানো। কিন্তু আমাদের আশেপাশে থাকা কিছু সুবিধাবঞ্চিত শিশুর জন্য এসব অপূরণীয় কল্পনা মাত্র।

মজার ইশকুল (একটি অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন উদ্যোগ), ২০১৩ সাল থেকে বিগত ০৮ বছর ধরে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কাছে ঈদের আনন্দ পৌঁছে দেওয়ার জন্যই মূলত ঈদ উৎসব এর আয়োজন করে আসছে। রাজধানী ঢাকাসহ মোট ০৮ টি বিভাগের পথশিশুদের তথ্য সংগ্রহ করা করার সহজ মাধ্যম হিসেবে মজার ইশকুল বেছে নেয় ঈদ উৎসব এর আয়োজনের পথ।

মজার ইশকুল এর ঈদ উৎসব আয়োজনে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের হাতে তুলে দেওয়া হয় ঈদের নতুন পোশাক। ছেলেদের জন্য আমরা বেছে নেই শার্ট এ প্যান্ট এবং মেয়েদের জন্য জামা ও টাইলস। শিশুদের হাতে তুলে দেওয়া ঈদের নতুন পোশাকটি যাতে তার মাপমত হয় তা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে মজার ইশকুল স্বেচ্ছাসেবী টিম উৎসবের ৬০ দিন পূর্ব থেকেই প্রতি পয়েন্টে শিশুদের পোশাকের মাপ নেওয়ার কাজ শুরু করে দেয়।

শিশুদের ঈদ আনন্দকে বাড়িয়ে দিতে ঈদের পোশাকের সাথে ছেলে মেয়ে উভয়ের জন্য রয়েছে রঙ্গিন ঘড়ি ও চশমা। সাথে আরো যুক্ত হয় মেয়েদের মেকআপ বক্স ও ছেলেদের বেল্ট।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় পোশাকের পাশাপাশি একটি চশমা বা জামার সাথে মেকআপ এর সরঞ্জাম শিশুর আনন্দকে দ্বিগুণ করে দেয়। অনেক শিশুর পোশাকের চেয়ে তার রঙ্গিন ঘড়ি নিয়ে উত্তেজনা কাজ করে সবচেয়ে বেশি।

শিশুদের পোশাক ও আনুষঙ্গিক সরঞ্জাম কেনার সময় শিশুদের পছন্দ ও প্রচলিত ফ্যাশনের দিকে সবচেয়ে বেশি খেয়াল রাখা হয়।

কেনাকাটা শেষ এবার শিশুদের তালিকা ও নির্ধারিত মাপ অনুসারে মেয়েদের জন্য লাল ব্যাগে জামা, টাইটস, মেকাপবক্স, লিপস্টিক, রঙ্গীন চশমা ও ঘড়ি এবং ছেলেদের জন্য লাল ব্যাগে শার্ট, প্যান্ট, বেল্ট, রঙ্গীন চশমা ও ঘড়ি প্যাকিং এর করা হয়।

সকল প্রস্তুতি শেষে থাকে উৎসবে শিশুদের হাসিমুখ দেখার অপেক্ষা।

বিগত বছরের ধারাবাহিকতায় এইবারের ঈদ আয়োজন মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০২০, সিজন-০৮ এ রাজধানী ঢাকা সহ ৮টি বিভাগে (ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর) ২০০০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর কাছে ঈদ আনন্দ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করছে মজার ইশকুল টিম।
Readmore
Eid Festival Previous Video Gallery

Eid Festival Previous Video Gallery

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Integer adipiscing erat eget risus sollicitudin pellentesque
Eid Festival Photo Previous Photo Gallery

Eid Festival Photo Previous Photo Gallery

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit. Integer adipiscing erat eget risus sollicitudin pellentesque
Image
Image
Image
Image
Image
Image
Image
Image
Image
Image
Image
Image