ফেইজ – ৩ এর প্রথম ২টি স্থায়ী ইশকুল মজার ইশকুলঃ মনপুরা-১ ও মজার ইশকুলঃ মনপুরা-২। মজার ইশকুলের বিগত প্রায় ৬ বছরের অধিক সময় ধরে ফেইজ-০১; রাজধানী ঢাকার খোলা আকাশের নিচে পরিচালিত ইশকুলের তথ্য যাচাই করে দেখা যায় সর্বাধিক ১৭% শিশু ঢাকায় পথশিশু হিসেবে পরিচিতি পায় বরিশাল জেলা অথবা বিভাগ থেকে এসে। যেহেতু সকল শিশু জেলা বা থানা পর্যায়ে ঠিকানা দিতে পারে না তাই বরিশালকে বিভাগ হিসেবে গন্য করা হয়েছে। এরপরই ভোলা দ্বীপ জেলা থেকে মোট শিশুর প্রায় ১৫% শিশু আগত।

এই ধারাবাহিকতায় ডাটাবেজ অনুসারে গাইবান্ধায় ৭.২৫%, ময়মনসিংহ জেলায় ৭% এবং চাঁদপুর জেলা থেকে ৫.৫% পর্যায়ক্রমে সর্বাধিক শিশুর স্থায়ী ঠিকানা। ফেইজ-০৩ এর কার্যক্রমের ক্ষেত্রে ফেইজ-০১ এর এ ডাটাবেজকে সর্বাধিক গুরুত্ব প্রদান করে স্থায়ী ইশকুলের কার্যক্রম পরিচালনার পরিকল্পনা রয়েছে।

ভোলা জেলার ৭টি উপজেলার মধ্যে মনপুরা উপজেলা একটি দ্বীপ। ০১ এপ্রিল ২০১৯ মনপুরা উপজেলার ২টি ইউনিয়ন, দক্ষিণ সাকুচিয়ায় ইউনিয়নের মজার ইশকুলঃ মনপুরা-১ এবং কাজিরচর ইউনিয়নে মজার ইশকুলঃ মনপুরা -২ অবস্থিত। ১০০ জন সুবিধাবঞ্চিত শিশুকে নিয়ে মজার ইশকুলঃ মনপুরা-১ এবং মজার ইশকুলঃ মনপুরা-২ এর কার্যক্রমের সূচনা ঘটে।

উল্লেখ্য যে কাজিরচরে প্রায় ৫০০ পরিবার বসবাসরত থাকা সত্ত্বেও সরকারি বা ব্যক্তিগত উদ্যোগে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালিত হচ্ছে না মজার ইশকুলঃ মনপুরা -২ ই এখানের প্রথম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

মনপুরা উপজেলা নির্বাচন করার প্রধান কারণ হলো ২টি।

১। উক্ত স্থানের শিশুদের যাতে আর ঢাকায় আসতে না হয়,

২। তারা তাদের গ্রামেই মজার ইশকুলে পড়ার সুযোগ পায়।

ফেইজ-০১; রাজধানী ঢাকার খোলা আকাশের নিচে পরিচালিত ইশকুলের তথ্য যাচাই করে দেখা যায় সর্বাধিক ১৭% শিশু ঢাকায় পথশিশু হিসেবে পরিচিতি পায় বরিশাল জেলা অথবা বিভাগ থেকে এসে। যেহেতু সকল শিশু জেলা বা থানা পর্যায়ে ঠিকানা দিতে পারে না তাই বরিশালকে বিভাগ হিসেবে গন্য করা হয়েছে।

উক্ত তথ্যের উপর ভিত্তি করে বরিশাল বিভাগে কাজের পরিকল্পনা করা হয়েছে যা বাস্তবায়ন হয় ২০১৭ সালের মজার ইশকুলঃ ঈদ উৎসব ২০১৭, সিজন-৫ এর মাধ্যমে।

ডাটাবেজ অনুসারে বরিশাল বিভাগের ভোলা দ্বীপ জেলা থেকে মোট শিশুর প্রায় ১৫%। উক্ত স্থানে সর্বাধিক প্রয়োজন এমন ২টি স্থান দক্ষিণ সাকুচিয়া ও কাজিরচর ইউনিয়নে স্থায়ী ইশকুলের কার্যক্রম শুরু করেছে মজার ইশকুল।

ডাটাবেজ অনুসারে যেহেতু বরিশাল বিভাগ থেকে সর্বাধিক শিশু, পথশিশু হিসেবে জীবনযাপন করছে, তাই ঢাকা বিভাগের পরই বরিশাল বিভাগে স্থায়ী ইশকুল বা প্রয়োজন অনুসারে খোলা আকাশের নিচে পরিচালিত আরও ইশকুল পরিচালনের ইচ্ছা রয়েছে মজার ইশকুলের।

বর্তমানে বরিশালের ঠিক কোন জেলা বা উপজেলা থেকে সর্বাধিক শিশু আসছে উক্ত তথ্য সংগ্রহ নিয়ে কাজ করহে মজার ইশকুল।