#Empowerment&Livelihood

RIKSA (Rehabilitation Idea Key for Sustainable Activity) প্রজেক্ট

প্রজেক্টের লক্ষ্যঃ শিক্ষার্থীদের ইশকুলে পড়া নিশ্চিত করার জন্য পরিবারকে স্বাবলম্বী করে তোলা।

প্রজেক্টের উদ্দেশ্যঃ
১। শিক্ষার্থী বাবা অথবা মা অথবা বাবা-মা উভয়ের জন্য একটি আয়ের উৎস তৈরী করা।
২। পরিবারের আর্থিক সমস্যার কারণে শিক্ষার্থীকে কাজে দেওয়া বা গ্রামে পাঠিয়ে দেওয়ার প্রবণতা কমানো।

মজার ইশকুল শুরু থেকেই পথশিশু সমস্যার স্থায়ী ও দীর্ঘ মেয়াদী সমাধান নিয়ে কাজ করে আসছে। স্থায়ী ইশকুল তার একটি মাধ্যম। মজার ইশকুল শিক্ষার্থীদের ইশকুলে আসা নিশ্চিত করার মাধ্যম হিসেবে শিক্ষার্থীদের বাবাদের আয়ের উৎস তৈরি করাকে নির্ধারণ করা হয়।

২০১৪ সাল থেকে মজার ইশকুল’র স্থায়ী ইশকুলের কার্যক্রম শুরু করা হয়, তখন থেকেই পরিকল্পনা ও প্রোজেক্ট শুরু করার জন্য চেষ্টা চলমান ছিলো। প্রোজেক্ট শুরু করার আগে আমরা নিশ্চিত করেছি শিক্ষার্থীর বাবা তাকে পড়ানোর বিষয়ে কতটা আগ্রহী। শিক্ষার্থীর পড়াশোনার পথ মসৃণের জন্য এ উদ্যোগ, যাতে পরিবার আর্থিকভাবে স্বচ্ছল হওয়ার সাথে সাথে শিক্ষার্থী পড়াশোনা করে দেশের সম্পদে পরিণত হতে পারে।

২০১৭ সালের জুন মাসে ১ম রিক্সা হস্তান্তরের মাধ্যমে RIKSA (Rehabilitation Idea Key for Sustainable Activity) প্রজেক্ট শুরু করা হয়। এরপর আরো কিছু শুভাকাঙ্ক্ষীর সাহায্যে এখন পর্যন্ত ৩টি রিক্সা ও ১টি ভ্যান হস্তান্তর করা হয়। ৪টি পরিবারের মোট ৮ জন মজার ইশকুলের শিক্ষার্থী, যাদের পরিবারের আর্থিক উৎস নিশ্চিত হওয়ার কারণে ৮ জন শিক্ষার্থীর ইশকুলে পড়াশোনা প্রায় ১০০% নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে।